বন্ধুত্ব কথাটির মানে অনেক জটিল। বন্ধুত্ব অনেকের কাছে অনেক রকম হয়ে থাকে। কারো কাছে বন্ধুত্ব মানে শুধু মাত্র ছেলে খেলা। আর কারো কাছে বন্ধুত্ব মানে অনেক বড় ব্যাপার। আর এই বন্ধুত্ত্ব কথাটি যতটা ছোট এর মূল্য ততটাই কঠিন। সবাই সবার বন্ধু হতে পারে না। বন্ধু হওয়ার জন্য থাকতে হবে কতগুলো গুণ যা বর্তমান যুগে অনেক এর ভিতরে নেই।

আসুন আজকে আমরা জানি বন্ধুত্বটা আসল মানে? বর্তমান যুগে স্বার্থ ছাড়া কেউ আপনার বন্ধু হবে না। যখন কেউ দেখবেন যে আপনার কাছে আসলে তার স্বার্থ হবে, তখনই সে আপনার প্রকৃত বন্ধু হওয়ার চেষ্টা করবে। কিন্তু যখনই তার স্বার্থ ফুরিয়ে যাবে তখনই দেখবেন তার নতুন রূপ। তখনই চেনা মানুষ টিকে অনেক অচেনা মনে হবে। সে শুধুমাত্র কিছু সময়ের জন্য সে আপনার কাছে এসেছিল তার স্বার্থ মেটাতে । আপনি আগে যাকে দেখেছেন তার সাথে এখন এর মিল নেই।স্বার্থ জিনিসটা ত্যাগ করতে হবে যদি প্রকৃত বন্ধু পেতে চান।

বন্ধু হতে হলে সবার আগে আপনাদের মধ্যে থাকতে হবে অনেক মিল। দুজনের মতামত এক থাকতে হবে। কারণ দুজনের মতামত এর ভিতরে যদি ভিন্নতা আসে তাহলে কখনই আপনারা বন্ধু হতে পারবেন না। কোন কাজ করার সময় শান্তি মত কাজটি করতে পারবেন না। কারণ আপনি কাজ ঠিকভাবে করতে চাইবেন আর আপনার বন্ধু আরেকভাবে করতে চাইবে। তাই বন্ধুত্ব করার আগে অবশ্যই দেখে নেবেন আপনাদের দুজনের ভিতরে মিল আছে কিনা।

আর যদি প্রকৃত বন্ধু হতে চান কারো তাহলে অবশ্যই নিজের ভিতর ত্যাগ রাখতে হবে। কারণ আপনি যদি ত্যাগ করতে না জানেন, তাহলে কখনই বন্ধুত্বের মর্যাদা রক্ষা করতে পারবেন না। একটি বন্ধুর জন্য অবশ্যই আপনাকে অনেক কিছু ত্যাগ করতে হবে। আপনি যদি শুধুমাত্র আপনার নিজের টাই বোঝেন তাহলে কখনই প্রকৃত বন্ধু হতে পারবেন না।

আর একটি বন্ধুর থেকে কখনোই কিছু লুকাবে না। কারণ আপনি যাকে বন্ধু ভাবেন তার কাছ থেকে যদি আপনি কোন কিছু লুকান।তারপর আপনার সেই বন্ধুটি যদি সেই কথা জানতে পারে তাহলে সে মন থেকে অনেক কষ্ট পাবে এর ফলে আপনাদের ভিতর দেয়ালের সৃষ্টি হবে। —বন্ধুত্ব কথাটির মানে

আর আস্তে আস্তে আপনাদের বন্ধুত্ব ভেঙে যাবে। তাই বন্ধুত্ব করার সময় অবশ্যই খেয়াল রাখবেন যাতে আপনি আপনার বন্ধুর কাছ থেকে কিছু না লুকান। সব সময় তাকে সত্যি কথা বলবেন। ঠিক একইভাবে আপনার বন্ধু আপনাকে সত্যি কথা বলবে। এর ফলে বন্ধুত্ব আরো অটুট হবে।

By admin

Leave a Reply

Your email address will not be published.