পর্ব-০১

ছেলেটির নাম ছিল শিশির আর মেয়েটির নাম ছিল কণা। দুজনের সেই প্রাইমারি জীবনের বন্ধুত্ব। একজনের ছাড়া যেন অন্য জনের চলেই না। দিনের শুরু থেকে শেষ অব্দি দুইজন মিলে থাকে ঝগড়াঝাঁটি আর খুনসুটিতে। তারা বরাবরই এমন। তারা দুজন এসব এই অভ্যস্ত । সেতো মারামারি, রাগারাগি, ঝগড়াঝাঁটির পরেও দুজনের বন্ধুত্বের খুঁটি কখনোই নড়বড়ে হয়নি। সেই ছোটবেলার জীবন থেকে ভার্সিটির জীবন পর্যন্ত দুইজন দুইজনের পাশে আছে সবসময়। হোক সেটা ভালো সময় কিংবা খারাপ সময় কেউ কারো সঙ্গ ছাড়ে নি কখনোই । এখন তারা ভার্সিটির স্টুডেন্ট। তাদের সম্পর্কটা বড় হয়ে গেলেও করা হয়নি তারা। ‌ থেমে যায়নি তাদের খুনসুটি বরং যত দিন যাচ্ছে তত যেন বেড়েই চলেছে তাদের এখন খুনসুটি। বন্ধুত্ব

সকাল ৯ টা শিশিরের ফোনটা তখন থেকে বেজেই চলেছে আর সে বারবার ফোন কেটে দিচ্ছে। বেশ কয়েকবার ফোন আসার পর শিশির ফোনটা রিসিভ করল। ফোন রিসিভ করার সাথে সাথে ফোনের ওপাশ থেকে ভেসে আসছে একজনের রাগী কণ্ঠ।

– কি জমিদার সাহেব ঘুম থেকে উঠবেন না নাকি আপনার জন্য স্পেশাল মানুষ ঠিক করে দিতে হবে ঘুম থেকে তুলে দেয়ার জন্য? ( হ্যাঁ আর কেউ নয় এটাই কনা। প্রতিদিন ওর কন্টিনূম ভাঙ্গে শিশিরের। এটা যেন রোজকার রুটিনে পরিণত হয়ে গেছে। প্রতিদিন কথা বলে তোকে কাল থেকে আর ডাকবো না কিন্তু কালকে ঠিকই শিশিরের ফোনে কোন নাম্বার থেকে ফোন কর ভেসে ওঠে।)

আমি মোটেই জমিদার নয় আর আমার জন্য আলাদা কেন মানুষ লাগবে তুই তো আছিস ঘুম থেকে তুলে দেয়ার জন্য আমার এলার্ম। ( কনা রেগে গেছে দেখে শিশিরকণা কে এটাই বললো)

– বেশি আদিখ্যেতা করিস না তাড়াতাড়ি ভার্সিটিতে চলে আয় না হলে দেখবি তোর একটা পা আর তোর সাথে নেই।

আসছি বাবা আসছি একটু ওয়েট কর আমি জাস্ট ২ মিনিটের চলে আসব ( শিশির)

১ ঘন্টা পর ভার্সিটির প্রাঙ্গণে দেখা মিলল শিশিরের। ওদিকে কনা গাল ফুলিয়ে বসে আছে রাগে যেন লাল হয়ে গেছে মেয়েটা।== বন্ধুত্ব

কিরে গাল ফুল নিয়ে বসে আছিস কেন? – এইতো দুই মিনিট তাই না? ডেইলি তোর এই ঘুমের কারণে ফাস্ট ক্লাস মিস হয়ে যায়। কাল থেকে তুই তোর মত আমি আমার মত আমি আর তোকে ফোন দিয়ে ডাকতে পারব না আর তোর জন্য অপেক্ষা করতে পারব না।

আচ্ছা সেটা কাল দেখা যাবে আর চল তো । আজহার ক্লাস করতে হবে না। আজ তোকে এক জায়গায় নিয়ে যাব।

– তোর সাথে যদি আমি কোথাও যেতে চাই না। তোর যাওয়ার হয়তো তুই যা আমি যাব না । বলেই কণা আবার গাল ফুলিয়ে বসে রইল।

আচ্ছা বেশ তাহলে আমি এখানেই বসে থাকবো। – তোর এত নাটক আর ভালো লাগেনা ডেইলি নিজে লেট করবে আবার উল্টো নিজেই ঢং করবি। কই যাবি বল।

জাহান্নামে যাবো তোকে নিয়ে চল গেলেই দেখতে পাবি (শিশির) ………………………….. চলবে ।

By admin

Leave a Reply

Your email address will not be published.